ঢাকারবিবার , ১৭ ডিসেম্বর ২০২৩
  1. খেলা
  2. চাকরি
  3. জীবনযাপন
  4. বাণিজ্য
  5. বাংলাদেশ
  6. বিনোদন
  7. বিশেষ সংবাদ
  8. বিশ্ব
  9. রাজনীতি
  10. সর্বশেষ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লক্ষ্মীপুর জেলায় পতাকা অবমাননা নিয়ে সংঘর্ষঃ–

দৈনিক কণ্ঠস্বর প্রতিদিন
ডিসেম্বর ১৭, ২০২৩ ৫:০১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ-

লক্ষ্মীপুর জেলায় মহান বিজয় দিবসের পতাকা অবমাননার প্রতিবাদ করায় মোহাম্মদীয়া হোটেলে শ্রমিকদের হামলার শিকার হন লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদের তহসিলদার ওমর ফারুক ও লক্ষ্মীপুর রায়পুরের চর বংশী ইউনিয়ন পরিষদের তহসিলদার আরিফুর রহমান । পরবর্তীতে আহত দুই তহসিলদার কে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

গতকাল শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল ০৮ ঘটিকার
সময় লক্ষ্মীপুর শহরের উত্তর তেমুহনী এলাকায় মোহাম্মদীয়া হোটেলে এ ঘটনাটি ঘটে। বিক্ষুব্ধ জনতা মোহাম্মদীয়া হোটেল বন্ধ করার বিক্ষোভ করতে থাকে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন এবং ৮ জন হোটেল কর্মচারীকে আটক করেন।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদের তহসিলদার আহত ওমর ফারুক, প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা সুজায়েতর উল্যাহর পুত্র এবং লক্ষ্মীপুর রায়পুরের চর বংশী ইউনিয়ন পরিষদের তহসিলদার আহত আরিফুর রহমান, প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা আলী আহম্মদের পুত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় যে, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। শহরের উত্তর তেমুহনী এলাকায় মোহাম্মদীয়া হোটেল কর্তৃপক্ষ বিকৃতভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এসময় মোহাম্মদীয়া হোটেলে খাবার খেতে এসে পতাকার অবমানার প্রতিবাদ করেন তহসিলদার ওমর ফারুক ও আরিফুর রহমান। এতে মোহাম্মদীয়া হোটেলের ম্যানেজার রাকিবের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চড় দেন। এতে হোটেলের শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে ফারুক হোসেন ও আরিফুর রহমানের উপর হামলা চালায়।

এ নিয়ে দুই-পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের ২জনকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এদিকে জাতীয় পতাকার অবমাননার ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। এ ঘটনায় পুলিশ ওই হোটেলের ৮ কর্মচারীকে আটক করে থানায় নিয়ে যান।

সদর হাসপাতালের চিকিৎসক, আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, ২জনের মাথা ও হাতে কাঁচের বোতল ও গ্যাস সিলিন্ডার দিয়ে আঘাত করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মোহাম্মদীয়া হোটেল কতৃপক্ষ মুখ খোলেননি।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক ওলি উল্যাহ আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন, হোটেল শ্রমিকরা যে হামলা করেছে, এটি অন্যায় কাজ করেছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান জানান, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক ও লজ্জা জনক। তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এটি ফৌজদারি অপরাধে, ৮ জনকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় নিয়মিত মামলা নিতে সদর থানাকে বলা হয়েছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
মতামত সর্বশেষ